HomeLifestyleআল কোরআনের আলোকে ধর্ষণের কারণ ও প্রতিকার

আল কোরআনের আলোকে ধর্ষণের কারণ ও প্রতিকার

নারীর অসম্মান ও ধর্ষণে দায়ীঃ ১। পুরুষের কূদৃষ্টিঃ সমাধানঃ আল্লাহ তাআলা বলেন- ‘(হে নবি! আপনি) মুমিন (পুরুষদের) বলে দিন, তারা যেন তাদের দৃষ্টিকে নিচু করে এবং লজ্জাস্থানের হেফাজত করে, এটা তাদের জন্য অধিকতর পবিত্র। তারা যা কিছু করে আল্লাহ সে বিষয়ে অবগত। ২। নারীর কূদৃষ্টিঃ সমাধানঃ আল্লাহ তাআলা বলেন- এবং (হে নবি! আপনি) ঈমানদার নারীদের বলুন, তারা যেন তাদের দৃষ্টিকে নিচু রাখে এবং তাদের লজ্জাস্থানের হেফাজত করে। তারা যেন যা সাধারণত প্রকাশমান, তাছাড়া তাদের সৌন্দর্য প্রদর্শন না করে এবং তারা যেন তাদের মাথার ওড়না বক্ষদেশে ফেলে রাখে; ৩। নারীর অশালীন পোশাক ও চালচলনঃ সমাধানঃ আল্লাহ তাআলা বলেন-এবং তারা যেন তাদের স্বামী, পিতা, শ্বশুর, পুত্র, স্বামীর পুত্র, ভ্রাতা, ভ্রাতুষ্পুত্র, ভগ্নিপুত্র, স্ত্রীলোক অধিকারভুক্ত দাসি, যৌনকামনামুক্ত পুরুষ ও বালক, যারা নারীদের গোপন অঙ্গ সম্পর্কে অজ্ঞ, তাদের ব্যতীত কারো কাছে তাদের সৌন্দর্য প্রকাশ না করে, তারা যেন তাদের গোপন সাজ-সজ্জা প্রকাশ করার জন্য জোরে পদচারণা না করে। মুমিনগণ, তোমরা সবাই আল্লাহর সামনে তওবা কর, যাতে তোমরা সফলকাম হও।’ (সুরা নূর : আয়াত ৩০-৩১) ৪। অশ্লিলতা, পর্ণ ইত্যাদির সয়লাবঃ সমাধানঃ আল্লাহ বলেন, তোমরা ব্যভিচারের কাছেও যেও না। অবশ্যই এটা অশ্লীল কাজ ও নিকৃষ্ট পন্থা। ৫। অসুস্থ মন বা অন্তরঃ সমাধানঃ আল্লাহ তাআলা বলেন-এ বিধান তোমাদের ও তাদের অন্তরের জন্য অধিকতর পবিত্রতার কারণ।’ (সূরা আহযাব: ৫৩) সুতরাং আল্লাহর দেয়া বিধান পর্দা মানে না, আর বলে শুধু নিকৃষ্ট মানষিকতার কারনেই ধর্ষণ হয়। কুরয়ানের মাপকাঠিতে ওদের মনই সবচেয়ে বেশি নিকৃষ্ট। আল্লাহ আমাদের সকলকে আল্লাহর বিধান মানার তাওফিক দিক।
3 months ago (12/07/2021) 68 Views

Posted by (Author)

Need Login For Read And Write Comments

Related Shared

Read More Load More And Share Your Knowledge
© 2021 LoadX.Xyz